chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

সাতকানিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতা, গুলিবিদ্ধসহ আহত ১৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাতকানিয়া উপজেলার ২ নং খাগরিয়া ইউনিয়নে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে নারী ও শিশুসহ অন্তত ১৩ জন গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতদের কেউ দোহাজারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আর কেউ চমেকে চিকিৎসাধীন আছেন। 

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) খাগরিয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের জোড়ারকুল নামক স্থানে সকাল ১১টার দিকে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ইসলাম খাতুন (৬০), মো. শাহ আলম (৫৫), আহমদ হোসেন (৫০),  মো. মারুফ (১০), মো. মুহিবুল, ,  মো. রফিক (৫২), মো. ফারুক (৬১),  মুন্সি মিয়া (৫৫), আবদুল সালাম, আবছার উদ্দীন (৪৫),  মো. সায়েদ (২৫), আবু সুফিয়ান (২১), মনির আহমদ (৬২), জাফর আহমদ (৫৫)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খাগরিয়ার ৮ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগে গিয়েছিলেন মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন। উক্ত ওয়ার্ডে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আকতার হোসেনের বাড়ি। তার বাড়ির কাছাকাছি গেলেই গোলাগুলির শব্দ শুনে গণসংযোগে আসা প্রার্থীসহ অন্যান্যরা ছুটোছুটি শুরু করেন। এলোপাথাড়ি গুলিতে নারী-শিশুসহ গণসংযোগে আসা অনেকেই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে স্থানীয়রা।

দোহাজারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মরত চিকিৎসক রুমি দাশ জানান, এই সংঘর্ষের ঘটনায় আহত শিশু, নারী, পুরুষসহ অন্তত ১৪ জনকে হাসপাতালে আনা হয়। তাদের মধ্যে ১৩ জনের শরীরে ছররা গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে। আরেকজনের মাথা ফেটে গেছে ৷ আমরা তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছি।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার চট্টলা খবরকে বলেন, সাতকানিয়ার ঘটনায় ১০ জনকে বিকেল চারটা পর্যন্ত চমেকে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা আশংকামুক্ত।

স্বতন্ত্র প্রার্থী জসিম উদ্দিন বলেন, নৌকা প্রতীকের আকতার হোসেনের ইন্ধনে আমার গণসংযোগে পরিকল্পিত হামলা হয়েছে। গতকালও তারা আমার নির্বাচনী পোস্টার-ব্যানার ছিড়ে দিয়েছে। নির্বাচন থেকে সরে যেতে নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। তারই প্রেক্ষিতে আজ আমার গণসংযোগ উদ্দেশ্য করে তারা গুলি ছুঁড়েছে। এতে আমার ১০-১২ জন কর্মী আহত হয়েছেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে আকতার হোসেন বলেন, ওই প্রার্থীর বাড়ি ৫নং ওয়ার্ডে। তাছাড়া গণসংযোগের সময় দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। তিনি সকালে দলবল নিয়ে আমার বাড়িতে এসে হামলা করে। এতে আমার এক ফুফুসহ এলাকার অনেকে আহত হয়েছেন।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল জলিল বলেন, নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে আছি। তবে কোন পক্ষ এখনো মামলা করেনি। আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

প্রসঙ্গত, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিনও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি গাছবাড়িয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি এবং খাগরিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগেরও সাবেক সভাপতি। দলীয় মনোনয়ন চেয়ে না পেয়ে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন।

জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Leave A Reply

Your email address will not be published.