chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ভুয়া কবিরাজ ডেরা বাবা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: তান্ত্রিক চিকিৎসার আড়ালে পানি পড়ার সাথে চেতনানাশক মিশিয়ে মহিলাদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ও প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মোহাম্মদ আলী ওরফে (৬২) ডেরা বাবাকে আটক করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার (২৫ জানুয়ারি) হাটহাজারী থানার বাথুয়া এলাকা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)। এসময় তার কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতারণামূলক সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।
সে মৃত সুলতান আহমেদের ছেলে বলে জানা গেছে।

র‌্যাব জানায়, ভুক্তভোগী এক নারীর সঙ্গে তার স্বামীর দীর্ঘদিন ধরে যোগাযোগ ছিল না। মেয়ের পড়ালেখার জন্য সে নগরীর চান্দগাঁও এলাকায় একটি বাসায় ভাড়া থাকেন। ভাড়া বাসায় ওঠার তিন মাসেও তাকে কোনো ধরনের আর্থিক সহায়তা দেয়নি। মালয়েশিয়ায় থাকা স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে তিনি চিন্তিত হয়ে পড়েন। দিক বেদিক ছুটাছুটির পর প্রতিবেশীদের সহায়তা চান। এক পর্যায়ে প্রতিবেশীরা তাকে ভুয়া ডেরা বাবার সন্ধান দেন।

তৎক্ষণাৎ ওই নারী ভুয়া প্রতারক ডেরা বাবার সঙ্গে দেখা করেন। বিষয়টি শোনার পর তার কাজ করে দেওয়ার আশ্বাসে কবিরাজ পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে তাবিজ দেয়। কিন্তু তাতে কাজ না হওয়ার পর ভুয়া কবিরাজের বাসায় গিয়ে একে একে ১০ হাজার টাকা দেয়। এরপরও কাজ না হওয়ায় ভুক্তভোগী আবারও তার বাসায় যায়। ওই সময় কবিরাজ কাজ হওয়ার জন্য তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার কথা বলে। ওই প্রস্তাবে গৃহবধূ রাজি না হওয়ার তাকে পানিতে চেতনানাশক মিশিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) মো. নূরুল আবছার ভুয়া কবিরাজ আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, অসহায় মানুষের দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে নগদ টাকা হাতিয়ে নিতো। কিন্তু কাজ না হলে নারীদের শারীরিক সম্পর্কেও প্রস্তাব দিতো। এতে রাজি না হলে পানির সাথে চেতনাশক মিশিয়ে ধর্ষণ করে। ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ পেয়ে তাকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আরকে/জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর