chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ওমিক্রন ঠেকাতে নেদারল্যান্ডসে কঠোর লকডাউন, সতকর্তা লন্ডনে

ksrm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ঠেকাতে কঠোর লকডাউন জারি করেছে নেদারল্যান্ডস। দেশটিতে আসন্ন খ্রিষ্টান ধর্মীয়দের বড় দিনের উৎসবকে কেন্দ্র করে এই লডকডাউন জারি করা হয়েছে। এদিকে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটির সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় এটিকে ‘বড় ঘটনা’ ঘোষণা করে সতর্কবার্তা জারি করেছেন শহরটির মেয়র। খবর বিবিসি ও আলজাজিরা।

নেদারল্যান্ডস সরকার দেশটির অপ্রয়োজনীয় দোকান, বার, জিম, সেলুনসহ সব ধরনের জনসমাগমের স্থান অন্তত আগামী জানুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে। আর সাধারণ দিনে পরিবার প্রতি দুইজন অতিথিকে অনুমতি দেওয়া হবে- আর ছুটির দিন চারজন।

এই ঘোষণা আজ রোববার (১৯ ডিসেম্বর) থেকে কার্যকর হবে। এই ব্যবস্থাগুলো ‘অনিবার্য’ ছিল বলে গতকাল শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট।

তিনি বলেন, ‘আমি আজ রাতে এখানে একটি বিষণ্ন মেজাজে দাঁড়িয়ে আছি। যারা দেখছেন তারাও সেরকম অনুভব করছেন। এক বাক্যে বলতে গেলে, নেদারল্যান্ডস আগামীকাল থেকে পুনরায় লকডাউনে ফিরে যাবে।’

এদিকে লন্ডন শহরে ওমিক্রনের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে শহরটির মেয়র সাদিক খান। একইসঙ্গে এটিকে ‘বড় ঘটনা’ হিসেবে ঘোষণা করেছেন তিনি।

মেয়রের কর্যালয় জানিয়েছে, সকল সংস্থা একসঙ্গে কাজ করতে এবং নিজেদের মধ্যকার দূরত্ব কমাতে এটিকে বড় ঘটনা হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি করোনার ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ দেওয়ার সময়ও বাড়নো হবে।

গতকাল শনিবার মেয়র সাদিক বলেন, ওমিক্রনের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়া অতঙ্কিত হয়ে শহরটির এনএইচএস, ফায়ার সার্ভিস এবং পুলিশসহ গুরুত্বপূর্ণ জনসেবামূলক সংস্থাগুলোর কর্মীরা কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত হওয়া নিয়ে ‘অবিশ্বাস্যভাবে চিন্তিত’ তিনি।

তিনি বলেন, ‘রাজধানী জুড়ে ওমিক্রনের সংক্রমণ বৃদ্ধি ঘটনা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। তাই আমাদের শহরে করোনার হুমকির কারণে এটিকে বড় ঘটনা ঘোষণা করছি। ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টটি দ্রুত সংক্রমণ ঘটাচ্ছে। ফলে হাসপাতালগুলোতে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা আবারও বাড়ছে।’

মূলত করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার পর ইউরোপের দেশগুলো কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করছে। তারই ধারাবাহিকতায় নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ রোধে এই সিদ্ধান্ত নিল নেদারল্যান্ডস ও লন্ডনের মেয়র।

জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...