chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

তোর দোকানের সেল চারগুণ বেড়ে যাবে-রে কমলা!

ksrm

বিনোদন ডেস্ক : কলকাতার বিধান নগরের ফুটপাতে নুডলস বিক্রেতা কমলাকান্ত দাস। তার দোকানের দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করেছেন টালি অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের নাতনী রাইমা সেন

দোকানের সামনে দাড়িয়ে এক প্লেট নুডলস সাবাড় করে দিলেন এ অভিনেত্রী। শুধু খেলেন তা নয়,আরো এক প্লেট নুডলস তিনি নিয়ে যান পার্সেল।

মজার বিষয় হল তাকে চিনতেও পারলেন না দোকানি। আশপাশে যখন ভিড় জমে গেল তখনও নাকি কোনো হেলদোল নেই ওই দোকানির!

গেল বুধবার সন্ধ্যায় ছোট্ট দোকানে এত ভিড় দেখেও চিন্তার ভাজ নেই দোকানি কমলাকান্তের। নিজের কাজেই ব্যস্ত তিনি। ওমলেট ভাজছেন, চা করছেন। আর মাঝে মধ্যে গজর গজর করে বলছেন, ‘বুঝিনা বাবা। সুন্দরী দেখলেই সবাই কেমন হামলে পড়ে।’

চোখের বালির আশালতাকে চিনতে পারেননি কমলাকান্ত ওরফে নান্টু। তিনি ভেবেই নিয়েছিলেন, এলাকার কোনও সুন্দরী তার দোকানে এসেছেন, আর তাই দেখতেই লোকে ভিড় করেছে।

কিন্তু যখন জানতে পারলেন, রাইমা সেন তার দোকানে উপস্থিত তখন নাকি আকাশ থেকে পড়লেন তিনি।

বললেন, ‘সুচিত্রা সেনের নাতনি আমার দোকানে এতক্ষণ থাকলেন? এত কথা বললেন। মাস্ক খুলে খেলেন। তাও আমি চিনতে পারলাম না! এখন বুঝতে পারছি, কেন সবাই ছবি তোলার জন্য হামলে পড়ছিল।

কিন্তু তখন আর আফসোস ছাড়া কিছুই করার নেই কমলাকান্তর। ওদিকে আশপাশের দোকানদাররা অবশ্য বলে চলেছেন, ‘তোর দোকানের সেল তো কাল থেকে চারগুণ বেড়ে যাবে রে কমলা।’

এতেই নাকি চোখে মুখে হাজার ওয়াটের আলো জ্বলে উঠল কমলাকান্তের। জানালেন, ‘একবার দেবকে চা খাওয়ানোর সৌভাগ্য হয়েছিল। এবার রাইমাকে নুডলস খাওয়ালাম। সত্যি আমি ভাগ্যবান। -খবর সংবাদ প্রতিদিন

চখ/আর এস

Loading...