chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

মিতু হত্যা মামলা তদন্ত করছে ওমর ফারুক

ksrm

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামে আলোচিত সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় আবারো পরিবর্তণ হয়েছে তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও)।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) ইন্সপেক্টর আবু জাফর মো. ওমর ফারুককে দেয়া হয়েছে চাঞ্চল্যকর এ মামলার তদন্তভার। এ নিয়ে দুই বার তদন্ত কর্মকর্তা বদলের পর এখন তৃতীয় তদন্ত কর্মকর্তার হাতে উঠেছে মামলাটির তদন্ত।

এর আগে একই মামলা তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন পিবিআইয়ের অপর পরিদর্শক মহিউদ্দীন। তারও আগে একই মামলাটি তদন্ত করেছিলেন পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

জানা গেছে, মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার শুরু থেকে পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা তদন্ত করেছেন। পরে বদলি হয়ে গত ১৮ নভেম্বর সিএমপিতে যোগ দেন। বর্তমানে তিনি খুলশী থানার ওসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ফলে তার পরিবর্তে গত ২২ নভেম্বর পিবিআইয়ের আরেক পরিদর্শক একেএম মহিউদ্দিন সেলিমকে মিতু হত্যা মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তবে দায়িত্ব পাবার ১৫ দিনের মাথায় তিনি পদোন্নতি পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার হন।

আজ মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) পিবিআই চট্টগ্রাম মহানগর শাখার পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মহিউদ্দিন সেলিম পদোন্নতি পাওয়া পরিদর্শক পদ মর্যাদার আরেকজনকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন করে এ মামলা তদন্ত করছেন ওমর ফারুক। তিনি এ হত্যাকান্ডে দায়ের হওয়া পৃথক দুটি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

পুলিশ পরিদর্শক আবু জাফর মো. ওমর ফারুক বলেন, আদালত থেকে কেইস ডকেট বুঝে নিয়ে তিনি তদন্ত শুরু করেছেন।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে নগরীর পাঁচলাইশ থানার ও আর নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে বাসার অদূরে গুলি ও ছুরিকাঘাত করে খুন করা হয় বাবুলের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে।

স্ত্রী খুনের ঘটনায় পুলিশ সদর দফতরের তৎকালীন এসপি বাবুল আক্তার বাদী হয়ে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর নানা নাটকীয় ঘটনায় এক পর্যায়ে পুলিশের চাকরি ছাড়েন বাবুল।

২০২০ সালের জানুয়ারিতে আদালতের নির্দেশে মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলা তদন্তের দায়িত্ব পায় পিবিআই। শুরু থেকেই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা মামলা তদন্ত করে আসছিলেন।

বাবুলকেই স্ত্রী হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী হিসেবে চিহ্নিত করে নিজেদের হেফাজতে নেয় পিবিআই। এদিকে গত ১২ মে মিতুর বাবা মোশারফ হোসেন মেয়ে জামাইকে আসামি করে মামলা করলে সেই মামলায় বাবুল আক্তারকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয় পিবিআই। গত ১৩ মে থেকে কারাগারে বাবুল আক্তার।

চখ/আর এস

Loading...