chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ট্রেন-সিএনজি-বাসের সংঘর্ষ: দায় বাস চালকের 

গেটম্যানের অবহেলা

ksrm

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম নগরীর খুলশীর ঝাউতলা রেলক্রসিংয়ে ডেমু ট্রেনের সঙ্গে গাড়ির সংঘর্ষের ঘটনায় বাসচালক শহিদুল আলম ও গেটম্যান আশরাফুল আলমগীর ভূঁইয়াকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে রেলওয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি। শহিদুল আলমকে সংঘর্ষের জন্য দায়ী আর গেটম্যান আশরাফুল দায়িত্বে অবহেলা করেছেন বলে পাঁচ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়।

এর মধ্যে বাসচালক ও গেটম্যান গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন। গেটম্যানকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ( ৯ ডিসেম্বরর) এই প্রতেবদন জমা দেন তদন্ত কমিটি। মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) সকালে তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) জাহাঙ্গীর হোসেন। তদন্ত কমিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা ঘটনার একদিন পরই তদন্তের কাজ শুরু করেন। ভিডিও ফুটেজ, প্রত্যক্ষদর্শীসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলেন। তদন্তে দুর্ঘটনার জন্য বাসচালক শহিদুল আলমকে বেশি দায়ী করেছেন। কারণ তিনি দ্রুত বেগে গাড়ি চালিয়ে আসেন। অন্য তিনটি গাড়িকে ধাক্কা দেন। বাসচালক যদি বেপরোয়া গতিতে গাড়ি না চালাতেন তাহলে দুর্ঘটনা ঘটত না।

পাশাপাশি এই দুর্ঘটনায় গেটম্যানের অবহেলা ছিল। তিনি সড়কের এক পাশে ব্যারিয়ার ফেলেননি। কমিটি এ জন্য গেটম্যান আশরাফুল আলমগীর ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তি নেওয়ার সুপারিশ করেছে। এদিকে ভবিষ্যতে রেল লেভেল ক্রসিং এলাকায় দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য কয়েকটি সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি।

উল্লেখ্য, ৪ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় ঝাউতলা রেলগেটে ডেমু ট্রেনের সঙ্গে বাস, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও টেম্পোর সংঘর্ষের ঘটনায় তিনজন নিহত হন। এদের মধ্যে ঘটনাস্থলে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্য মনির হোসেন, এইচএসসি পরীক্ষার্থী সাতরাজ উদ্দিন ও প্রকৌশলী সৈয়দ বাহা উদ্দিন। আহত হয়েছেন ৭ জন।

ঘটনার পর শনিবার (৪ ডিসেম্বর) রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন দাফতরিক আদেশে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের গঠন করা কমিটির প্রধান ছিল সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামানকে। কমিটির অপর চার সদস্যরা হলেন সহকারী কমান্ডেন্ট সত্যজিত দাশ, সহকারী প্রকৌশলী মো. ফারুক হোসেন, সহকারী যান্ত্রিক প্রকৌশলী বজলুর রহমান ও সহকারী সার্জন শিবু নাথ।

এসএএস/জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...