chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

ঘরে বসে দেখতে পারবেন না ঘরের মাঠের এশিয়ান হকি!

ksrm

ক্রীড়া ডেস্ক: এশিয়ার হকির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো এই টুর্নামেন্টের আয়োজক। সেই টুর্নামেন্টের খেলা স্টার স্পোর্টসে সরাসরি সম্প্রচার হলেও বাংলাদেশের অনেক দর্শক টিভিতে খেলা দেখতে পারবেন না।

এশিয়ান হকি ফেডারেশনের সদস্য ও এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সাংগঠনিক কমিটির চেয়ারম্যান বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার বলেন, ‘টুর্নামেন্টের সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস। আমাদের অনেক ক্যাবল অপারেটর এই পে চ্যানেল কিনেনি। ফলে বাংলাদেশের সাধারণ দর্শকদের অনেকেই এই খেলা ঘরে বসে দেখতে পারবেন না।’

টিভিতে না দেখতে পারলেও স্টেডিয়ামে দর্শকদের প্রবেশাধিকার রয়েছে। স্টেডিয়ামে দর্শকদের জন্য টিকিটে নেই। সবাই প্রবেশ করতে পারবে। এশিয়ান হকি ফেডারশেনের তথ্য অনুসারে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হকি ৭০টির বেশি দেশে সম্প্রচার হবে। স্টার স্পোর্টস টুর্নামেন্টে সম্প্রচার স্বত্ত্ব বিক্রি করতে চেয়েছিল বাংলাদেশেও । বাংলাদেশের কোনো চ্যানেল কিনেনি।

এই প্রসঙ্গে ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউসুফ বলেন, ‘আমরা ফেডারেশন থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কাউকে প্রস্তাব দেইনি। বিষয়টি নিয়ে স্টার স্পোর্টসের সঙ্গেই কয়েকটি চ্যানেল যোগাযোগ করেছিল পরে আর শেষ পর্যন্ত হয়নি।’

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন এশিয়ার গুরুত্বপূর্ণ এই টুর্নামেন্টের স্বাগতিক হয়েছে ৮০ হাজার ডলারের বিনিময়ে। ২০১৯ সালের এশিয়ান হকি ফেডারশেনের সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। ৮০ হাজার ডলার প্রায় ৭০ লাখ টাকা। এত টাকা টুর্নামেন্টের মাধ্যমে উঠানো সম্ভবও না।

বিষয়টি স্বীকার করেছেন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার, ‘আমরা সেই অর্থে স্পন্সর পাইনি বলতে গেলে। তারপরও চেষ্টা চলছে তবে অনেক ঘাটতি থেকেই যাবে।’ তারপরও প্রাপ্তি খুঁজছেন এই সংগঠক, ‘দেশের মাটিতে এত বড় টুর্নামেন্ট হওয়া বিরাট ব্যাপার। হকি খেলোয়াড়রা ভারত, পাকিস্তান, জাপান, কোরিয়ার সঙ্গে টানা খেলার সুযোগ সব সময় পায় না। এটাই আমাদের বড় পাওয়া হবে।’

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন বিভিন্ন আসর আয়োজনের জন্য স্বাগতিকদের বাড়তি অর্থ দেয়। এক্ষেত্রে একটু অন্য রকম এশিয়ান হকি ফেডারেশন। এই প্রসঙ্গে এশিয়ান হকি ফেডারেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তৈয়ব-ই-ইকরাম বলেন, ‘এই টুর্নামেন্ট থেকে বাংলাদেশের নানাভাবে আয়ের সুযোগ আছে। বিভিন্ন স্পন্সর, মার্কেটিং করে তারাও আয় করতে পারে।’

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের এখন অবশ্য আয়ের চিন্তা দূরে রেখে আগে এশিয়ান হকি ফেডারেশনের পাওনা টাকা দেওয়াটাই কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) থেকে টুর্নামেন্ট শুরু এখন এএইচএফের পাওনা মেটাতে ব্যস্ত হকি ফেডারেশন।

জেএইচ/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...