chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

চট্টগ্রাম নগরে চুরি করা মালামাল বিক্রি করে চকরিয়া-পেকুয়ায়!

ksrm

নিজস্ব প্রতিনিধি : মো. ছোটন মিয়া (১৮), তৌহিদুল ইসলাম (১৮) ও সাইফুল ইসলাম (২৬)। তিনজনই কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলার বাসিন্দা। পুলিশের সূত্রে জানা গেছে সবাই আন্তঃজেলা চোর চক্রের সদস্য।

চক্রটির সদস্যরা চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশ করে গভীর রাতেই ঘোরেন নগরীর অলি-গলি। সুযোগ পেলেই বাসা বাড়ি-দোকান কিংবা মসজিদ থেকে ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, হাতঘড়িসহ দামী জিনিসপত্র হাওয়া করে দেন।

এভাবেই একের পর এক চট্টগ্রাম নগরীতে চুরি করে চোরাই মালামাল নিয়ে বিক্রি করছে নিজেদের এলাকা চকরিয়া ও পেকুয়ায়। তবে সম্প্রতি নগরীর বায়েজিদ থানার অক্সিজেন গুলবাগ আবাসিক এলাকার একটি বাসাতে চুরির ঘটনায় ফেঁসে যায় এ চোর চক্রের কয়েকজন সদস্য।

চুয়েটের এক শিক্ষকের মূল্যবান গবেষণাপত্র সংরক্ষণ রাখা দামি একটি ল্যাপটপ চুরির অভিযোগ পেয়ে চোরকে শনাক্তের জন্য ওই বাসার সিসিটিভি ফুটেজে সিএমপির ফেসবুক পেইজে শেয়ার করা হয়।

গতকাল ১১ ডিসেম্বর হালিশহর এলাকায় চুরি করতে গিয়ে জনগণের হাতে ধরা পড়ে এ চক্রের দুজন। পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে হালিশহর থানা পুলিশের একটি টিম তাদের আটক করে।

আটককৃতদের চেহারা সিএমপির পেজে শেয়ার করা ফুটেজের সাথে মিল থাকায় দুজনকে বায়েজিদ থানায় হস্তান্তর করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে চুরির কথা স্বীকার করায় তাদের দেয়া তথ্যমতে রবিবার সকালে পেকুয়ায় অভিযান চালিয়ে তাদের আরেক সহযোগীকে আটক করা হয় এবং চুরি হওয়া ল্যাপটপটি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার তিনজনের মধ্যে মো. ছোটন মিয়া কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানার মধ্যম কোনাখালীর কামাল হোসেনের ছেলে, তৌহিদুল একই এলাকার শাহাব উদ্দিনের ছেলে এবং সাইফুল ফিরোজ আহম্মেদের ছেলে বলে জানায় পুলিশ।

আজ রবিবার বিকেলে আন্ত:জেলা চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতারের তথ্য নিশ্চিত করে এভাবেই চোরদের বর্ণনা দিলেন বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান।

তিনি বলেন, গত ৯ নভেম্বর সকালে বাসা থেকে চট্টগ্রাম প্রকৌশলী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের মূল্যবান গবেষণাপত্র সংরক্ষিত একটি ল্যাপটপ চুরি হয়। পরে তিনি থানায় এ বিষয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগ পেয়ে চোরকে শনাক্তের জন্য ওই বাসার সিসিটিভি ফুটেজে সিএমপির ফেসবুক পেইজে শেয়ার করা হয়। পরে ১১ ডিসেম্বর নগরের হালিশহর এলাকায় আরেকটি চুরি করতে গিয়ে জনগণের হাতে এ চক্রের দুই সদস্য ধরা পড়ার পর চুরির রহস্য উদঘাটন হয়।

রোববার ১২ ডিসেম্বর সকালে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া ও পেকুয়া থানার মাঝামাঝি দুর্গম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আরেক সদস্য সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয় এবং চুয়েটের ওই শিক্ষকের চুরি যাওয়া মূল্যবান গবেষণাপত্র সংরক্ষিত ল্যাপটপটিও উদ্ধার হয়।

চখ/আর এস

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...