chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

‘সড়কের উপর বিদ্যুতের খুঁটি-তারের জঞ্জাল শুধু বাংলাদেশেই দেখা যায়’

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘নগরায়নের কারণে আধুনিক বিশ্বে কোথাও শহর বন্দরের সড়কের উপর কোন বিদ্যুতের খুঁটি, ইন্টারনেট, ক্যাবল অপারেটরের ক্যাবল ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে না। যা শুধুমাত্র বাংলাদেশে দেখা যায়।’

আজ বুধবার দুপুরে টাইগারপাসস্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অস্থায়ী কার্যালয়ে চসিক মেয়রের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে এন্যার্জিট্রন অস্ট্রেলিয়া প্রতিনিধি দল এমন মন্তব্য করেন।

প্রতিনিধি দল মেয়রকে জানান, এ ধরনের ঝুলন্ত বৈদ্যুতিক, ইন্টারনেট ও ক্যাবল অপারেটরের সংযোগ ক্যাবল ও বিদ্যুতের খুঁটি একদিকে যেমন জঞ্জাল সৃষ্টি করে অপরদিকে ঝুঁকিপূর্ণ। এসব ক্যাবল ও খুঁটির কারণে যেকোন সময় নগরীতে বড় ধরনের দুর্ঘটনার শঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না।

এন্যার্জিট্রন কর্মকর্তারা এ বিষয়ে একটি সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখবে বলে মেয়রকে অবহিত করেন এবং তারা এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, ওয়াসা, চউকসহ সংশ্লিষ্ট সকল সেবা সংস্থার সাথে আলাপ করবে বলে জানান।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী তাদের প্রস্তাবে সায় দিয়ে প্রশংসা করে বলেন, উন্নত বিশ্বে সবকিছুর সংযোগ লাইন মাটির তলদেশে স্থাপিত হয়। বাংলাদেশেও তা করা সম্ভব হলে এর সুফল পাওয়া যাবে।

যেখানে আমরা ট্যানেলের মত উন্নত প্রযুক্তি চালুর মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আধুনিকায়ন করছি, সেখানে মাটির উপরে কোন সংযোগ লাইন না রাখলে নগরীর সৌন্দর্য বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে।

তিনি এন্যার্জিট্রন কর্মকর্তাদের সব সংযোগ লাইন খুঁটি অপসারণ করলেও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সড়কবাতির খুঁটি যাতে অপসারণ করা না হয় সে বিষয়টি বিবেচনায় রাখতে বলেন, না হলে আলোকায়ন কাজ ব্যাহত হবে।

এসময় মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, নির্বাহী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রেজাউল বারী ভূঁইয়া, বিপিডিবি আন্ডারগ্রাউন্ড প্রকল্পের উপদেষ্টা এ.কে.এম মোস্তফা কামাল, ডেপুটি টিম লিডার মো. আশরাফুল আলম, প্রকল্প ম্যানেজার মি. ক্রিস, ফিল্ড ম্যানেজার ফয়সাল খান, ফিল্ড সার্ভেয়ার আনিসুর রহমান, নাঈম সাব্বির রাসেল উপস্থিত ছিলেন।

আরএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...