chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

নগরীতে স্ত্রীকে হত্যাচেষ্টার সময় চাপাতি হাতে গ্রেপ্তার যুবক

নিজস্ব প্রতিবেদক : নগরীর ডবলমুরিং থানা এলাকায় চাপাতি দিয়ে স্ত্রী ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ির ওপর হামলার চেষ্টা ও হুমকি দেয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৭ আগস্ট) রাত ১১ টার দিকে ডবলমুরিং থানার গোসাইলডাঙ্গা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তার সুজন দাশ নগরীর আসকার দীঘির পাড় এলাকায় থাকেন। গোসাইলডাঙ্গার যে বাড়িতে ঘটনাটি ঘটেছে, সেটি তার স্ত্রী সুতৃষ্ণা দাশের বাবার বাড়ি।

ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, শনিবার রাতে থানায় ফোন দেয় সুতৃষ্ণার পরিবারের লোকজন। তারা জানায়, চাপাতি নিয়ে ওই বাড়িতে হামলা করেছেন সুজন। পুলিশ তখনই ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে গিয়ে তারা দেখেন, ওই বাড়ির সিঁড়িতে দুটি চাপাতি হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন সুজন।

পুলিশ দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি তেড়ে আসেন। এক পর্যায়ে নিজের গলায় চাপাতি ধরে আত্মহত্যার হুমকিও দেন। পরে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ওসি বলেন, সুতৃষ্ণা ও সুজনের ১৩ বছরের দাম্পত্য জীবনে দুই সন্তান আছে। সুতৃষ্ণার অভিযোগ, সম্প্রতি বিয়ে বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন সুজন। এর জেরে তাদের মধ্যে কলহ চলছিল। কলহের কারণে সুতৃষ্ণা বাচ্চাদের নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। তাতে ক্ষেপে গিয়ে স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে চাপাতি নিয়ে ওই বাড়িতে যান সুজন। দরজা ভাঙার চেষ্টা করেন তিনি। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

ওসি মহসীন আরো বলেন, সুজন নামের ওই লোক খুবই আগ্রাসী আচরণ করছিলেন। আমাদের টিম ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর ওই লোক চাপাতি নিয়ে পুলিশের দিকেও তেড়ে আসে। এ সময় গলায় চাপাতি ধরে আত্মহত্যার হুমকি দিলে পরিস্থিতি কঠিন হয়ে পড়ে। পরে এক ঘণ্টার চেষ্টায় কৌশলে তাকে নিবৃত করে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে দুটি চাপাতি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার নামে আত্মহত্যার চেষ্টা, হত্যাচেষ্টা ও হুমকি দেয়ার অভিযোগে মামলা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সুজন হামলার বিষয়টি স্বীকার করেছেন বলে জানান ওসি।

এসএএস/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...