chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

বঙ্গোপসাগরে জাল বসা নিয়ে জেলেদের বিরোধে এক জেলে নিখোঁজ , আহত ২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গোপসাগরের গভীর সমুদ্রে জাল বসানোকে কেন্দ্র করে আনোয়ারা গহিরা এলাকার জেলেদের সাথে বাঁশখালী খানখানাবাদ এলাকার জেলেদের মধ্যে জাল বসাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তি নিখোঁজ ও ২১ জন আহত হয়েছেন।

উপকূলীয় ফিশিং বোট মালিক সমিতি সূত্র জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ২ টার দিকে বাঁশখালী খানখানাবাদ এলাকার মো. এনাম ও আবুল বশরের মালিকানাধীন বড় মাওলানা ফিশিং বোটটি ২২ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে বঙ্গোসাগরে জাল ফেলতে যায়। গভীর সমুদ্রে জালের পার মারার সময় আনোয়ারা গহিরা এলাকার দুইটি বোট এসে তাঁদেরকে হামলা ও মারধর করে। এসময় বোটটি সাগরে ডুবে গেলে খানখানাবাদ ২ নং ওয়ার্ড দোয়ালিয়া পাড়া এলাকার শামশুল আলম ছেলে মো. নাছির (৩০) নামের এক ব্যক্তি নিখোঁজ হয়।
বোটে থাকা সাদুর রশীদ বলেন, আমরা ২২ জন বোট নিয়ে সাগরে জাল ফেলতে যাই। এসময় আনোয়ারা গহিরা এলাকার দুইটি বোট এসে আমাদেরকে মারধর করলে আমাদের বোটটি সমুদ্রে ডুবে যায়।

তিনি আরও বলেন, আমরা প্রায় ১ ঘণ্টা সাগরে ভাসমান ছিলাম। অন্য একটি বোট এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে সাগর পাড়ে নিয়ে এলেও নাছির নামে এক জেলে নিঁখোজ হয়।

তিনি আরও বলেন, নিহত নাছির ১২ বছর আগে কদম রসুল কুইন্নার পাড়া এলাকার মো. মুহিবুল্লার মেয়ে রানু আক্তারকে বিয়ে করে। সে ১ ছেলে ও ১ মেয়ে কন্যা সন্তানের জনক।
নিহত নাছিরের স্ত্রীর বড় ভাই মো. এনাম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গোপসাগরের গভীর সমুদ্রে ২২ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে জাল বসাতে যায় বড় মাওলানা ফিশিং বোটটি। এ সময় জালের পার মারার সময় আনোয়ারা গহিরা এলাকার ২ টি বোট তাদের হামলা করে। এসময় সাগরে ফিশিং বোটটি ডুবে গেলে অন্য মাছ ধরার বোট এসে তাদেরকে উদ্ধার করে। এসময় নাছির সাগরে ডুবে যায়।
খানখানাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মো. বদরুদ্দীন চৌধুরী বলেন, আমার ইউনিয়নের কদম রসুল এলাকা থেকে ২২ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে দুপুরে বঙ্গোপসাগর জাল বসাতে যায়। এসময় আনোয়ারা গহিরা এলাকার ২টি বোট তাদেরকে হামলা করে। এতে নাছির নামের এক ব্যক্তি নিখোঁজ হয়। রাত ৯ টা পর্যন্ত সাগরে আমাদের এলাকার আরো ৪ টি বোট গিয়ে তাকে খোঁজা হয়। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার ওসি মো. সফীউল কবীর বলেন, রাতে আমি এবং সহকারী পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরির্দশন করি। এখন ও একজন নিখোঁজ আছে। আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি।

এসএএস/নচ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...