chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতেই সিআরবিতে হাসপাতাল: মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতেই সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. রোজউল করিম চৌধুরী।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) দুপুরে টাইগারপাসস্থ চসিকের অস্থায়ী ভবনের সম্মেলন কক্ষে নাগরিক সমাজ চট্টগ্রামের পক্ষে দেয়া রাষ্ট্র ঘোষিত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সিআরবিতে বেসরকারি হাসপাতাল স্থাপনা নির্মাণ প্রকল্প বাস্তাবয়ন না করা সংক্রান্ত স্মারকলিপি গ্রহণকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

চসিক মেয়র বলেন, সরকারি প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সিআরবি একটি সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য স্মারক। এখানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ও বৈভব হানি করে হাসপাতাল তো নয়, ইট-পাথরের কোন স্থাপনা গড়ে তুলতে দেয়া হবে না।

‘চট্টগ্রাম নগরীর যেখানেই মুক্তিযুদ্ধ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের স্মৃতিময় স্থান রয়েছে সেগুলো যথাযথ সংরক্ষণ করে সেখানে ইতিহাসের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ তাৎপর্য স্মৃতিসৌধ স্মারক স্থাপনা গড়ে তোলা হবে।’

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের নানা জায়গায় ইতিহাস-ঐতিহ্যের অনেক হীরক খন্ড ছড়িয়ে আছে। এখানে সিপাহী বিদ্রোহ, বৃটিশ বিরোধী সশস্ত্র লড়াইয়ে মাস্টার দা সূর্যসেনের বিপ্লবী কর্মকাণ্ড, ঐতিহাসিক ৬ দফা ঘোষণা এবং মহান মুক্তিযুদ্ধসহ অনেক কালজয়ী ঘটনা সংঘটিত হয়েছিলো।

‘এই গৌরব দীপ্ত ঐতিহ্যের স্থানগুলো শনাক্ত করে রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে নতুন প্রজন্মের ইতিহাস অন্বেষণ ও জ্ঞান চক্ষু উম্মীলনের স্বার্থেই। তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম দরদী। তিনি ঐতিহ্য সচেতন ও প্রকৃতি প্রেমী। এ জন্য তিনি সারাবিশ্বে প্রশংসিত ও বরেণ্য হিসেবে স্বীকৃত।’

মেয়র বলেন, আমরা কিছুতেই তাঁর এই অনন্য স্বীকৃতিকে ম্লান হতে দেবো না। আমরা জানি একটি অশুভ চক্র আজ নানাভাবে সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে তৎপর। সিআবিতে হাসপাতাল নির্মাণ সেই অশুভ অপতৎপরতারই অংশ।

তিনি বলেন, আমরা হাসপাতাল চাই। তবে সিআরবিতে কোনভাবেই নয়। হাসপাতালের জন্য সিআরবি ছাড়া আরো অনেক বড় পরিসরের স্থান রয়েছে। চসিকেরও আছে। চাইলে আমরা হাসপাতালেল জায়গা দেবো।

‘কিন্তু তার আগেই আমরা নিশ্চয়তা চাই সিআরবিতে কোন হাসপাতাল নয়। তবে এটাও ঠিক হাসপাতাল হতে হবে সাধারণ মানুষের সেবার জন্য, বিত্তবানদের জন্য নয়।’

নাগরিক সমাজ চট্টগ্রামের সদস্য সচিব এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুলের নেতৃত্বে স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার, ডা. এ.কিউ.এম সিরাজুল ইসলাম, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের মহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছ, সিইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসিফ সিরাজ, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম মহাসচিব মহসিন কাজী, নাগরিক সমাজের যুগ্ম সদস্য সচিব রাশেদ হাসান, মিটুল দাশ গুপ্ত, স্বপন মজুমদার, নুরুল আজিম রনি, হামিদ উল্লাহ, সুজন ঘোষ, প্রিতম দাশ, মোরশেদ তালুকদার প্রমুখ।

এমআই/চখ

এই বিভাগের আরও খবর
Loading...