chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

কর্ণফুলীর পাড়ে শিল্প কারখানা বন্ধে মন্ত্রীর হুঁশিয়ারী

নিজস্ব প্রতিবেদক: কর্ণফুলী নদীর পাড়ে কোনো ধরণের শিল্প কারখানা নির্মাণ করতে দেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারী দিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শনিবার (২৬ জুন) দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে নগরের জলাবদ্ধতা নিরসন, কর্ণফুলী নদীর নাব্যতা বৃদ্ধি, দখল ও দূষণ রোধে গৃহীত কার্যক্রম পর্যালোচনার লক্ষ্যে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কর্ণফুলীর পাড় লিজ দিয়ে আর কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করতে দেওয়া হবে না। দেশের অর্থনীতির লাইফলাইন চট্টগ্রামেকে নিয়ে অবহেলার সুযোগ নেই। যারা খাল ও জলাশয় দখল করে অবকাঠামো নির্মাণ করেছেন তাদেরকে সেসব সরিয়ে নিতে হবে। অন্যথায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সতর্ক করেন মন্ত্রী।

কর্ণফুলীর পাড়ে শিল্প কারখানা বন্ধে মন্ত্রীর হুঁশিয়ারী

সভায় চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসণে চলমান ৯ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প তদারকির জন্য বিভাগীয় কমিশনারের প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে প্রতি মাসে প্রকল্পের কাজে অগ্রগতি তুলে ধরার নির্দেশনা দেন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

মন্ত্রী বলেন, নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনে সেনাবাহিনীর মাধ্যমে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে তা শিগগিরই শেষ হবে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলে নগরবাসী এর সুফল পাবে। প্রকল্পে কোনো ত্রুটি থাকলে সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি পাওয়া যায় তাহলে অবশ্যই সংশোধন করা হবে।

সেবা সংস্থাগুলোর উদ্দেশ্য মন্ত্রী বলেন, কেউ কাউকে দোষারোপ করে সরকারের অর্জন ম্লান করবেন না। সমন্বয়ের মাধ্যমে নগরের জলাবদ্ধতা নিরীসণের কাজে মনোযোগ দিন। প্রধানমন্ত্রী অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসব প্রকল্পের অর্থের ছাড়ের ব্যবস্থা করে দিয়ে দিয়েছেন।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো.কামরুল হাসান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। সেবা সংস্থাগুলোর মধ্যে চসিক মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, ওয়াসার এমডি প্রকৌশলী এ কে এমন ফজলুল্লাহ, সিডিএ’র চেয়ারম্যান জহিরুল আলমসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ অংশ নেন।

আরকে/নচ

এই বিভাগের আরও খবর