chattolarkhabor
চট্টলার খবর - খবরের সাথে সারাক্ষণ

লামার পাহাড়ে নৈসর্গিক সৌন্দর্য ছড়াচ্ছে ‘অনন্য রিসোর্ট’

অনন্য রিসোর্ট’ বান্দরবানের লামা উপজেলায় অন্যতম মনোরম পরিবেশে সৃষ্ট এক ইকো রিসোর্ট। পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে ঢেউ খেলানো নৈসর্গিক সৌন্দর্য ও ওই দূরে আকাঁবাকাঁ বয়ে চলা নদীর অপরূপ শ্যামল আঙ্গিনার পটভূমি প্রাকৃতকি কন্যা ‘লামা’। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপার সম্ভাবনা থাকায় সম্প্রতি পাহাড় ঘিরে পর্যটন পিপাসু মানুষের আর্কষণ বেড়েই চলছে।

কিন্তু প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের আদলে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা ও আগত পর্যটকদের থাকা-খাওয়ার কোন ভালো ব্যবস্থা ছিলনা। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে এবং লামার পর্যটন বিকাশে ডাঃ নুর মোহাম্মদ এর সর্বপ্রথম ব্যক্তি উদ্যোগে সৃষ্টি হলো অনন্য রিসোর্ট।

সবুজ গাছগাছালী, পাখির কলরব আর পাহাড়ের মেলবন্ধনের সাথে নিজেকে হারিয়ে ফেলা এবং শহরের কোলাহল ছেড়ে পাহাড়ি ঝর্না, গ্রাম সংস্কৃতি আর মাতামুহুরী নদীর সুন্দর প্রকৃতির খুব কাছাকাছি আসার এক অপার সুযোগ। এ যেন পল্লী কবি জসীম উদ্দীনের নিমন্ত্রণ কবিতার বাস্তব উদাহরণ। যেখানে থাকবে দেশী-বিদেশী পর্যটকদের জন্য নানান সুযোগ-সুবিধা। পর্যটকদের চাহিদা মেটাতে থাকবে দেশী ও উপমহাদেশীয় খাবার। বাচ্চাদের বিনোদনের ব্যবস্থা। সেমিনার, পারিবারিক প্রোগ্রাম ‘বিয়ে, আকিকা, এঙ্গেজমেন্ট ইত্যাদি’ পিকনিক স্পট ও রাতে থাকার কটেজ সহ নামাজের সুব্যবস্থা। সবুজ শ্যামল পরিবেশে সৃষ্ট এই রিসোর্ট দেখতে প্রতিদিনই শতশত টুরিস্ট ভিড় জমাচ্ছে এখানে।

সরেজমিনে দেখা যায়, এখানে বিভিন্ন পর্যটক রাত্রী যাপন করছেন। ঢাকা থেকে আসা ৫ জন যুবক গতকাল এখানে এসেছিল এবং আজ তাদেরকে প্রস্থান করতে দেখা যায়। তাদের একজন মোস্তাফিজুর রহমান বলেন- ‘আমরা এটি’র ভিউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখে এসেছি। আর এখানে এসে বাস্তব চিত্র দেখলাম, আসলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে খুব ভাল লাগল’। এছাড়াও বিকেলে বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ পরিবারসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দর্শন করতে এখানে আসে। স্থানটিতে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ আগমন করে থাকে। যান্ত্রিক শহরের বাহিরে নিরবে নিভৃতে আপন মনে নিশ্চিন্ত সময় কাটানো যায় এখানে।

সম্প্রতি সময়ে এমন একটি উদ্যোগে লামায় প্রকৃতিবান্ধব ট্যুরিজমের সম্ভাবনা জেগে উঠবে বলে ধারণা করছেন জনপ্রতিনিধি সহ অনেকেই। এই রিসোর্টের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা নিয়ে কথা হয় অনন্য রিসোর্টের উদ্যোক্তা ডাঃ নূর মোহাম্মদের সাথে। তিনি জানান, প্রায় ৫ একর পাহাড়ি জায়গার উপর রিসোর্টটি নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কটেজ ও স্টপ তৈরি করা হচ্ছে। বারো মাসের প্রকৃতির পরিবর্তন বুঝেই রিসোর্টের প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়। ইতিমধ্যে এখানে পানির ও বিদ্যুৎ সমস্যার সুন্দর সমাধান হয়েছে। পরিবার-পরিজন নিয়ে বা গ্রুপ ট্যুরে আসা পর্যটকদের শতভাগ নিরাপত্তা দেয়া হবে ইনশাআল্লাহ্। বর্তমানে প্রতিরাতে ৫০ জন পর্যটক থাকার ব্যবস্থা ও তিনশত লোকের খাবার পরিবেশন করার সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা, চট্টগ্রাম বা দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অনন্য রিসোর্ট লামায় আসতে হলে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া পয়েন্টে নামতে হবে। সেখান থেকে বাস অথবা জিপে চড়ে লামা শহরে আসার দুই কিলোমিটার আগে সরকারি মাতামুহুরী কলেজের সামনে পশ্চিম দিকে নুনারঝিরি রোড দিয়ে ১ কিলোমিটার ভেতরে গেলেই পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত অনন্য রিসোর্ট। মেইন রোড থেকে সিএনজি-টমটম, অটোরিকশা বা মোটরবাইক যোগে সহজেই রিসোর্টে যাওয়া যায়। যারা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই রিসোর্টে যেতে চান, তারা পূর্বের থেকে যোগাযোগ করতে পারেন। ম্যানাজার, অনন্য রিসোর্ট ০১৮১৯-৬৩৫৫৪১। এছাড়া ফেসবুকে ‘অনন্য রিসোর্ট, লামা, বান্দরবান’ এই আইডিতে রিসোর্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারেন।

ফখ|চখ

এই বিভাগের আরও খবর